Unilever logo

জীবাণুমুক্ত করবেন বাবুর ফিডার? চলুন জানি কী কী দরকার!

অপরিষ্কার ফিডারের কারণে শিশুর পেটের অসুখ করতে পারে। বিশেষ করে ফিডারের নিপল রাবারের তৈরি বলে এতে ধূলাবালি ও জীবাণু বেশি আটকে যায়। তাই আমাদের বাচ্চাদের খাবার নিরাপদ রাখার পাশাপাশি বিশেষভাবে নজর দিতে হবে খাবার পরিবেশনের পাত্র অর্থাৎ ফিডারের পরিচ্ছন্নতার উপরও।

আপডেট করা হয়েছে

অনেকেই ফিডার জীবাণুমুক্ত ও পরিষ্কারের সঠিক নিয়ম জানেন না। কী ভাবছেন, কীভাবে জীবাণুমুক্ত করবেন বাবুর ফিডার? কথা না বাড়িয়ে চলুন তবে জেনে নিই!

যেভাবে জীবাণুমুক্ত করবেন বাবুর ফিডার

  1. ফিডার ধোওয়ার আগে প্রস্তুতি:

    অবশ্যই প্রথমে নিজের হাত ভালো করে সাবান দিয়ে ধুয়ে, তারপর আপনার বাবুর বোতল পরিষ্কার করুন। গ্লাভস এবং ব্রাশ ও ডিসিনফেক্টেন্ট দইয়ে পরিস্কার করে নিতে হবে।

  2. কীভাবে ধুতে হবে?

    ফিডারের সকল অংশ খুলে তা ভালোভাবে ধুয়ে নিন। ফিডারের বোতল আর নিপল একই ব্রাশ দিয়েই সবাই পরিষ্কার করে থাকে। কিন্তু বোতলের ব্রাশ দিয়ে নিপল ভালোভাবে পরিষ্কার করা যায় না। তাই ফিডারের বোতল আর নিপল পরিষ্কারের জন্য আলাদা ব্রাশ ব্যবহার করুন। বাজারে বোতল আর নিপল পরিষ্কারের জন্য আলাদা ব্রাশ কিনতে পাওয়া যায়। বিভিন্ন সুপার শপেও খুঁজলে পেয়ে যাবেন। আর ফিডার পরিষ্কারের জন্য যে ডিশ-ওয়াশার ব্যবহার করবেন তা যেন কোনোভাবেই ফিডারের কোনো অংশে লেগে না থাকে। তাই ভালোভাবে বেশি করে পানি দিয়ে ফিডার ধুয়ে ফেলুন।

  3. কীভাবে জীবাণুমুক্ত করতে হবে?

    আমাদের চারপাশে আছে নানা ধরনের জীবাণু, যা আমরা খালি চোখে দেখতে পাই না। হতে পারে সাবান-পানি দিয়ে ধোয়ার পরও ফিডার জীবাণুমুক্ত হয়নি। তাই বাচ্চার স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে আমরা আরও একধাপ এগিয়ে যাবো। কারণ, বাচ্চার সুস্থতায় একটুও ছাড় নয়! এই ধাপে, ধুয়ে রাখা ফিডারের সকল অংশ থেকে পানি ঝড়িয়ে, একটি পাতিলে গরম পানিতে ডুবিয়ে রাখতে হবে।  

    তার জন্য আমাদের চাই ফিডারের মাপ অনুযায়ী পাতিল বা সুবিধামতো পাত্র। তাতে এমন পরিমাণ পানি নিতে হবে যেন ফিডার ডুবে থাকে। এরপর চুলায় পাত্রের পানি ফুটে উঠলে তাতে ফিডারের সব অংশ ডুবিয়ে দিন। মিনিট পাঁচেক গরম পানিতে সেগুলো ফুটিয়ে নিন। তারপর চুলার আগুন নিভিয়ে, পাত্র ঢেকে দিয়ে ভাপে রেখে দিন আরও কিছু সময়।

ব্যস! হয়ে গেলো আপনার বাবুর ফিডার জীবাণুমুক্ত। এবার ফিডার থেকে পানি ঝড়িয়ে এতে করে নিশ্চিন্তে আপনার সোনামণির মুখে খাবার দিতে পারেন। আর হ্যাঁ, আরও একটি টিপস দেই। সবসময় বাচ্চার জন্য একাধিক ফিডার রাখবেন আর কেনার আগে অবশ্যই ভালো মানের প্লাস্টিক ও নিপলের মেয়াদ দেখে কিনবেন!

মূলভাবে প্রকাশিত