Unilever logo

শীতের কাপড়কে ফাঙ্গাস থেকে বাঁচানোর উপায়

প্রতিবছর শীতের শেষে প্রচুর কষ্ট আর সাধনা করে কাপড়গুলো আলমারিতে রেখে পরের বছরের জন্য নিশ্চিত হতে চান অনেকেই।

আপডেট করা হয়েছে

পরিষ্কার কাপড়গুলো আলমারিতে রেখেই ভাবেন ব্যস হয়ে গেলো ! এরপর আর খোঁজও নেয়া হয় না। আর তখনই এক গুপ্ত ঘাতক এসে কাপড়ের পরতে-পরতে ঢুকে একে ধ্বংস করে দিয়ে যায়। এই গুপ্ত ঘাতকের নামই হলো ফাঙ্গাস!

আপনার জন্য প্রয়োজনীয়:

  • বাতি
  • নিমের ডাল
  • ন্যাপথালিন
  • সিলিকা জেল
  • কয়লা
  • প্লাস্টিক

ফাঙ্গাস পরার কারণ

ছোটখাটো অনেক কারণ থাকলেও মূলত দু’টি কারণে কাপড়ে ফাঙ্গাস হয়।

  1. বাতাসের আর্দ্রতা:

    ঘরের বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেশি থাকলে তা স্বাভাবিকভাবেই আলমারির ভেতরের কাপড়ে প্রবেশ করে। এবং অনেকদিন ধরে এরকম অবস্থায় থাকার ফলে কাপড়ে ফাঙ্গাসের সৃষ্টি হয়। চামড়ার তৈরি পোশাকের জন্য যা সবচেয়ে বেশি ক্ষতিকর।

  2. স্যাঁতস্যাঁতে বা ভেজা কাপড়:

    কাপড় ভালোভাবে না শুকিয়ে আলমারিতে রেখে দেওয়া। যেমন বর্ষায় ধোয়া কাপড় শুকিয়ে গেছে মনে হলেও ভেতরে জলীয় কণা রয়ে যায়। এরপর এটাই যখন অনেকদিন ধরে অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে থাকে, তখনই ভেতরে ফাঙ্গাস জন্ম নয়।

  3. বন্ধ ওয়ারড্রবে রেখে দেয়াঃ

    কাপর অনেকদিন বন্ধ ওয়ারড্রবে রেখে দিলে মাঝে মাঝে দেখা যায়ে শুধু ওয়ারড্রব-এর গায় না, কাপরের উপরেও ফাঙ্গাস পরে যায়ে।

কীভাবে প্রতিরোধ করা যায়?

  1. সূর্যের আলোতে ভালোভাবে শুকিয়ে নেয়া

    কাপড় সূর্যের আলোতে ভালোভাবে শুকিয়ে তবেই আলমারিতে রাখতে হবে। এছাড়াও ঘরের আলো-বাতাস পূর্ণ জায়গায় আলমারি রাখা উচিত। মাঝে মাঝে তার দরজা খুলে আলো-বাতাস যাতায়াতের ব্যবস্থা করে দিতে হবে।

  2. একসাথে অনেক কাপড় না ধোয়া

    একসাথে অনেক কাপড় ধোয়া উচিত নয়। বর্ষায় ভারী কাপড় না ধোয়াই ভালো। এর বদলে ড্রাই-ওয়াশ করা যেতে পারে।

  3. নিমের ডাল

    নিমের কয়েকটি ডাল পাতাসহ শুকিয়ে আলমারির ভেতরে রেখে দেওয়া যেতে পারে। নিমের রাসায়নিক গুণ কাপড়ে ফাঙ্গাস জন্মাতে দেবে না।

  4. ন্যাপথালিন

    কর্পূর বা ন্যাপথালিনের কিছু টুকরো বা বল পুঁটুলি করে কাপড়ের ভাজে রেখে দেওয়া যেতে পারে। এটা বাতাসের বাড়তি আর্দ্রতা শুষে ফাঙ্গাস রোধ করবে।

  5. সিলিকা জেল

    আলমারিতে সিলিকা জেলের ছোটো ছোটো প্যাকেট রাখা যায়। সিলিকা কাপড়ের ময়েশ্চার শুষে নিয়ে ফাঙ্গাস জন্মাতে বাধা দিবে।

  6. কয়লা

    একটি ছোটো টিনে কিছু ফুটো করে কয়েক টুকরা কয়লা (রান্নার কাজে ব্যবহৃত কয়লা নয়) রেখে দেওয়া যেতে পারে।

  7. প্লাস্টিক দিয়ে তাক মুড়ানো

    আলমারির ভেতরের তাকগুলো প্লাস্টিক দিয়ে মুড়ে দেওয়া যেতে পারে। এতে আলমারিতে ময়েশ্চার জমে ফাঙ্গাস হতে পারে না।

  8. আলমারির ভেতর বাতি

    এছাড়াও আলমারির ভেতরে খুব কম ভোল্টেজের একটা বাতি লাগিয়ে নেওয়া যেতে পারে। এতে হালকা তাপ উৎপন্ন হবে যা কাপড়ের ব্যাকটেরিয়া ও ময়েশ্চার দূর করে ফাঙ্গাস রোধ করবে।

শুধুমাত্র ফাঙ্গাসের কারণে কত প্রয়োজনীয়, শখের ও স্মৃতি বিজড়িত কাপড় নষ্ট হয়, ভুক্তভোগী মাত্রই তা জানেন। অথচ একটু সাবধান হলেই কাপড়কে ফাঙ্গাসের আক্রমন থেকে রক্ষ করা সম্ভব!

মূলভাবে প্রকাশিত